Home Privacy Policy About Contact Disclimer Sitemap
নোটিশ :
আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ! সারাদেশে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে । যোগায়োগ করুন : ০১৭৪০৭৪৩৬২০
কেন ভালোবাসা হারিয়ে যায়

কেন ভালোবাসা হারিয়ে যায়

ঘর বেঁধেও প্রিয় মানুষটাকে বাঁধতে পারেননি যেসকল তাঁরকারা

বিনোদন ডেস্ক :         জীবনে ভালোবাসা যেমন আসে তেমন হারিয়েও যায়। তারকাদের জীবনেও ভালোবাসার ঘর বাঁধতে দেখা যায় অনেককেই। কিন্তু সময়ের ব্যবধানে অনেক ভালোবাসার পথ দুদিকে বেঁকে যায়। তেমন কয়েকজন তারকার ভালোবাসার ঘর ভাঙার গল্পই উঠে এসেছে এ আয়োজনে।

শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস

দেশের সিনেমার জনপ্রিয় তারকা শাকিব খান বিয়ে করে ৮ বছর সংসার করেছিলেন, তা কাউকে ঘুণাক্ষরে জানাতে চাননি। সন্তান জন্মের পর অপুর সঙ্গে দ্বন্দ্ব যখন চরমে, ঠিক তখনই অপু বিশ্বাস বিয়ের বিষয়টি জনসমক্ষে তুলে ধরেন। এ জন্য তিনি বেছে নেন টেলিভিশনের লাইভ অনুষ্ঠান। ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল টেলিভিশন চ্যানেলে উপস্থিত হয়ে শাকিবের সঙ্গে নিজের গোপন বিয়ের ঘোষণা দেন অপু বিশ্বাস। এতে আট বছর আগের বিয়ের খবর জনসমক্ষে চলে আসে। এর পরই দুজনের মধ্যে শুরু হয় সম্পর্কের টানাপড়েন। তাদের সেই টানাপড়েন চূড়ান্ত পরিণতির দিকে যায়। সেই বছরের ২২ নভেম্বরে আইনজীবীর মাধ্যমে অপুর কাছে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব খান। তিন মাস পর তাদের বিচ্ছেদ কার্যকর হয়। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর দেশের বাইরের একটি হাসপাতালে জন্ম হয় শাকিব ও অপুর সন্তান আব্রাম খান জয়ের। দুজনের কেউ এখন পর্যন্ত বিয়ে করেননি।

তাহসান-মিথিলা

বাংলাদেশের বিনোদন অঙ্গনে আদর্শ দম্পতির উদাহরণ হিসেবে তাহসান ও মিথিলার নামটি বেশি উচ্চারিত হতো। সবাইকে অবাক করে ২০১৭ সালে এই দুই তারকার সংসার ভেঙে যায়। অক্টোবরে নিজেদের বিচ্ছেদের কথা স্বীকার করেন দুজনেই। ফেসবুকে মিথিলার সঙ্গে নিজের বিচ্ছেদের খবরটি জানান তাহসান। সেদিন তাহসান ও মিথিলা যৌথ বিবৃতিতে বলেন, ‘দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, আমাদের বিবাহবিচ্ছেদ হচ্ছে। কয়েক মাস ধরেই আমরা বিষয়টি নিয়ে ভাবছিলাম। অবশেষে সিদ্ধান্ত নিলাম কোনো চাপে না থেকে আলাদা থাকার। আমরা জানি, আমাদের এই সিদ্ধান্তে অনেকে ব্যথিত হবেন। সে জন্য আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি।’

সে সময় মিথিলা বলেছিলেন, ‘আমাদের বোঝাপড়ায় অনেক দিন ধরে সমস্যা হচ্ছিল। ব্যক্তিত্বের দ্বন্দ্বও প্রকট ছিল। জীবন নিয়ে শুরুতে এক ধরনের পরিকল্পনা ছিল, সময়ের সঙ্গে তা বদলে গেছে। তার পরও এত বছরের সম্পর্ক তো আর এত সহজে কেউ ভেঙে ফেলতে চায় না। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। কারণ আমাদের একটি সন্তান আছে। দুই বছর ধরে আলাদা থাকলেও সন্তান আর সংসারের কথা ভেবে আমরা একসঙ্গে কাজ করে ভালো থাকার চেষ্টা করেছি। শেষ পর্যন্ত আমরা বুঝতে পেরেছি, সম্পর্কটা আর টিকবে না।’

একই দিনে তাহসান তার বিচ্ছেদ নিয়ে বলেছিলেন, ‘এ দেশের মানুষ পর্দায় আর পর্দার বাইরে আমাদের জুটি হিসেবে ভালোবেসেছেন, সে জন্য আমরা ধন্য। কিন্তু সমাজ কী বলবে- এই ভয়ে অভিনয় করে সারা জীবন কাটিয়ে দিতে হবে, আমরা দুজন এ ব্যাপারটার সঙ্গে একমত নই।’

তাহসান ও মিথিলা ২০০৬ সালে ৩ আগস্ট বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। আইরা তেহরীম খান তাহসান-মিথিলা দম্পতির একমাত্র সন্তান। মিথিলা বিয়ে করে সংসার করছেন। তাহসান এখনো বিয়ে করেননি।

অপূর্ব ও অদিতি

২০১১ সালের ১৪ জুলাই অদিতিকে বিয়ে করেন অপূর্ব। ২০১৪ সালের জুন মাসে মা-বাবা হন তারা। তাদের সংসারে আয়াশ নামে একটি পুত্রসন্তান রয়েছে। তাদের ৯ বছরের সংসারজীবনে ইতি টেনেছেন। শুরুতে বিষয়টি নিয়ে অপূর্ব মুখ না খুললেও সংবাদমাধ্যমে বিচ্ছেদের খবর প্রকাশের পর ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে বিচ্ছেদের বিষয় নিয়ে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন।

এদিকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছেদের কারণ প্রসঙ্গে অদিতি বলেন, ‘দুজনের চিন্তার জায়গায় এক হচ্ছিল না। এ ছাড়া আরও কিছু কারণ তো ছিলই। বলা যায় বড় ঝামেলাই হয়েছে দুজনের মধ্যে। দুজনই খুব চেষ্টা করেছি একসঙ্গে থাকতে। কিন্তু হলো না। একটা সময় বুঝলাম দুজন আলাদা হয়ে গেলে আমাদের মধ্যে সুসম্পর্কটা টিকে থাকবে, দুজনের সম্মানও বজায় থাকবে। এতে আমাদের সন্তান আয়াশও ভালো থাকবে। কারণ মনোমালিন্য নিয়ে সংসার করলে আমাদের সন্তানের জন্য খারাপ হতো।’

এর আগে ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট অপূর্ব চুপি চুপি বিয়ে করেছিলেন আরেক অভিনয়শিল্পী প্রভাকে। বিয়ের ৬ মাসের মাথায় ২০১১ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি অপূর্বর প্রথম সংসারের ইতি টানতে হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights Reserved
Developed By Cyber Planet BD