Home Privacy Policy About Contact Disclimer Sitemap
নোটিশ :
আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ! সারাদেশে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে । যোগায়োগ করুন : ০১৭৪০৭৪৩৬২০
বরগুনায় শিশু কন্যাকে ধর্ষন চেষ্টা: আসামি গ্রেফতার

বরগুনায় শিশু কন্যাকে ধর্ষন চেষ্টা: আসামি গ্রেফতার

বরগুনা :      বরগুনা সদর উপজেলার ৯ বছরের তৃতীয় শ্রেনীতে পড়ুয়া এক শিশু কন্যাকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে নাঈমুর রহমান (২৯) নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে বরগুনা থানা পুলিশ।

বরগুনা থানা সূত্রে জানা গেছে- বরগুনা সদর উপজেলার ৫ নং আয়লা পাতাঘাটা ইউনিয়নের ৩য় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে পার্শ্ববর্তী ৪ নং কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়নের জব্বার মিয়ার ছেলে নাঈমুর রহমান একটি সরকারি প্রাইমারি স্কুলের বাথরুমে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। মেয়েটির ডাক চিৎকার শুনে
স্থানীয়রা মেয়েটিকে উদ্ধার করে এবং জরুরি কল সেন্টার ৯৯৯ এ কল করে অভিযুক্ত নাঈমুর রহমানকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী।

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, অভিযুক্তকারী নাঈমুর রহমান গত এক মাস পূর্বে ঢাকার নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার ৫ বছরের এক কন্যা শিশুকে ধর্ষন করে হত্যা করে। ঢাকার আড়াই হাজার থানায় নাঈমুরের নামে একটি হত্যা মামলা চলমান রয়েছে।

শনিবার (০৯ অক্টোবর) দুপুর দুইটার দিকে বরগুনা সদর উপজেলার ৫ নং আয়লা পাতাঘাটা ইউনিয়নের তুলাতলা ইটবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এঘটনা ঘটে।

ভিকটিমের পিতা জানান- দুপুরে গোসল করার উদ্দেশ্যে পুকুরে গেলে ওত পেতে থাকা বখাটে নাঈমুর রহমান আমার মেয়েকে পাশের একটি স্কুলের বাথরুমে নিয়ে ধর্ষন করার চেষ্টা করে। ওর চিৎকারে এলাকার লোকজন এসে আমার মেয়েকে উদ্ধার করে এবং এসময়ে আসামী পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

পরে স্থানীয়রা আসামীকে আটক করে জরুরি কল সেন্টার ৯৯৯ এ কল দিলে বরগুনা সদর থানার এস আই রেজাউল করিম বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে নাইমুরকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন-আমার মেয়েকে পথ দেখানোর কথা বলে স্কুলের বাথরুমে ঢুকিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। আমি অভিযুক্তকারী নাঈমুর রহমানের বিরুদ্ধে ধর্ষন মামলা করবো। আমি আইনের মাধ্যমে এর সঠিক বিচার চাই।

এসআই রেজাউল করিম বলেন- ৯৯৯ জরুরী কল সেন্টারের মাধ্যমে আমি জানতে পেরে দ্রুত ঘটনা স্থলে যাই। পরে সেখানে অভিযান চালিয়ে স্থানীয় লোকের সহযোগীতায় নাঈমুর রহমানকে গ্রেফতার করে ভিকটিমসহ থানায় নিয়ে আসি।

এব্যাপারে বরগুনা সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) কে,এম, তারিকুল ইসলাম বলেন- ৯৯৯ ফোন পেয়ে আমাদের পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তকারী নাঈমুর রহমানকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। বর্তমানে এবিষয়ে একটি ধর্ষন মামলার প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরও জানান- অভিযুক্তকারী এই নাঈমুর রহমানের নামে ঢাকার আড়াইহাজার থানায় একটি শিশু হত্যা মামলা রয়েছে। গত এক মাস আগে এই নাঈমুর রহমান ঢাকায় ৫ বছরের একটি কন্যা শিশুকে ধর্ষন করে হত্যা করে। সেই মামলারও সে একজন পলাতক আসামী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights Reserved
Developed By Cyber Planet BD