Home Privacy Policy About Contact Disclimer Sitemap
নোটিশ :
আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ! সারাদেশে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে । যোগায়োগ করুন : ০১৭৪০৭৪৩৬২০
মেয়ে সন্তান হওয়ায় গৃহবধূকে তাড়িয়ে দিলো স্বামীর পরিবার

মেয়ে সন্তান হওয়ায় গৃহবধূকে তাড়িয়ে দিলো স্বামীর পরিবার

রোকসানা খাতুন ও তার নবজাতক।

নিউজ ডেস্ক :      প্রথম সন্তান মেয়ে হওয়ায় কারণে গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে রোকসানা খাতুন (২৩) নামে এক গৃহবধূকে চার দিনের নবজাতকসহ তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার পর জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ নবজাতকসহ ওই মাকে উদ্ধার করে। এরপর স্বামীর বাড়িতে স্থান না পেয়ে বাবার বাড়িতে ঠাঁই হয়েছে গৃহবধূ রোকসানা খাতুনের।

জানা যায়, এক বছর আগে ঘোড়ামারা গ্রামের মহব্বর আলীর ছেলে রাজা মিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয় সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের ধনিয়ারকুড়া গ্রামের লুৎফর মিয়ার মেয়ে রোকসানা থাতুনের। বিয়ের পর ভালোই চলছিল তাদের সংসার। কিন্তু গত আড়াই মাস আগে স্বামী রাজা মিয়া ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে বুঝতে পারেন রোকসানার গর্ভে কন্যা সন্তান। এরপর থেকেই রোকসানার ওপর নেমে আসে অমানসিক নির্যাতন।

গত ৮ মার্চ স্বামীর বাড়িতে প্রসব বেদনা উঠলে রোকসানাকে দ্রুত নেওয়া হয় রংপুরের বেসরকারি একটি ক্লিনিকে। সেদিনই ডাক্তারের পরামর্শে অস্ত্রপচারের মাধ্যমে রোকসানা জন্ম দেন মেয়ে সন্তান। এর চার দিন পর গত বৃহস্পতিবার হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে দুপুরে স্বামীর বাড়ি ঘোড়ামারায় ফেরেন তিনি। বাড়ি ফিরে দেখেন বাড়ির মূল ফটকে ঝুলছে তালা। ভেতর থেকেও কারো সাড়া পাননি তিনি। চার দিনের নবজাতকসহ সারাদিন বাড়ির উঠানে বসেছিলেন গৃহবধূ।

পরে বিকেলে রোকসানার শ্বশুর ও শাশুড়ি তাকে সাফ জানিয়ে দেন তিনমাস আগে তালাক দেওয়া হয়েছে তাকে। এটা শুনে উপায়ন্তু খুঁজে না পেয়ে গৃহবধূ রোকসানা সন্ধ্যার দিকে ফোন করেন জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ। ততক্ষণে কোলের নবজাতকটি অনেকটাই অসুস্থ হয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে দ্রুত পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রোকসানা ও তার নবজাতককে উদ্ধার করে। পরে তার শ্বশুর বাড়ির মূল গেটে তালা ও বাড়িতে কাউকে না পেয়ে পুলিশ তাকে সুন্দরগঞ্জের বাবার বাড়িতে পাঠায়।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন সাদুল্লাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা। তিনি জানান, পুলিশ পাঠিয়ে নবজাতকসহ রোকসানাকে উদ্ধার করে তার বাবার বাড়িতে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights Reserved
Developed By Cyber Planet BD