Home Privacy Policy About Contact Disclimer Sitemap
নোটিশ :
আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ! সারাদেশে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে । যোগায়োগ করুন : ০১৭৪০৭৪৩৬২০
সংবাদ শিরোনাম :
সৎ কর্তব্য পরায়ণ ও গরিবের বন্ধু বরগুনার এসপি জাহাঙ্গীর মল্লিক অপরাধ দমনে পুলিশ-সাংবাদিক একসাথে কাজ করবে- পুলিশ সুপার বরগুনা রাজধানীর ভাটারা থানাধীন শাহজাদপুর থেকে গৃহবধু নিখোজ মিডিয়া ব্যক্তিত্বে জাতীয় পর্যায়ে শেখ হাসিনা ইয়্যুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০২০ পেলেন দ্বীপাঞ্চলের রিয়াদ বরগুনায় বাবা-ছেলে কর্তৃক কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ বরগুনা রিপোর্টার্স ইউনিটির-২০২২ সালের কার্যনির্বাহী কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ অভিযান-১০” লঞ্চে অগ্নিকান্ড, বরগুনায় অজ্ঞাতদের জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন শিক্ষা মন্ত্রীর অঙ্গীকার বাস্তবায়ন চাই, বিএমজিটিএ সভাপতি ত্যাগী নেতা-কর্মীদের নাকের ডগায় ভুঁইফোররা দলে রাম রাজত্ব করছে : পরশ উপকূলীয় জীবন ও জীবিকার নিরাপত্তায় মতবিনিময় সভায় র‍্যাব ফোর্সেস মহাপরিচালক -আল-মামুন
৩ জন ভুয়া সাংবাদিক ও ১ জন ভুয়া ম্যাজিষ্ট্রেটকে গণ-ধোলাই

৩ জন ভুয়া সাংবাদিক ও ১ জন ভুয়া ম্যাজিষ্ট্রেটকে গণ-ধোলাই

নাদিম হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :      রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ীতে নাহার নামের এক বেকারির দোকানে গিয়ে চাঁদাবাজির সময় ৩জন ভূয়া সাংবাদিক ও ১ জন ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেটকে গণ ধোলাই দিয়েছে স্থানীয়রা। সোমবার বেলা সাড়ে ১১ টায় গোদাগাড়ির কামার পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা বলছেন, যখন তাদের কাছে ম্যাজিস্ট্রেটের আইডি কার্ড চাইলাম। তখন একতালে বলে উঠলো, “আমরা ৩ জন সাংবাদিক“।আর ওই যে নাসির স্যার সে একজন ম্যাজিস্ট্রেট।

র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট বানিয়ে ওই বেকারির দোকানে অভিযান পরিচালনা করতে ঢুকেন তারা। আর বাকি ভুয়া সাংবাদিকরা হলো চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার হরিপুর গ্রামের আলমগীর হোসেন, শুভো,গোদাগাড়ির সাফিয়ান স্বাধিন এবং হরিপুর গ্রামের ভুয়া ম্যাজিষ্ট্রেট নাসির।

এ সময় তারা ওই বেকারির মালিক থেকে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন।তারা বার বার ভোক্তা অধিকারের নাম বলা-বলি করছিলো। এক পর্যায়ে বেকারির মালকের সন্দেহ হলে ভাবতে থাকে এরা তো নিজেই ম্যাজিস্ট্রেট, তো বারবার ভোক্তা- অধিকারকে দিয়ে কেন অভিযান করাবে? ওই ৪ জন মিলে ওই বেকারির মালিকে হুমকি দিচ্ছিলো, এটা করবো, জরিমানা করবো, জেল দিবো, অস্বাস্থ্যকর খাবার ইত্যাদি বলে ভয়ভিতি দেখাচ্ছিলো। এমতাবস্তায় বেকারির মালিকের সন্দেহ হলেই বেকারির মালিক উচ্চস্বরে বলে নাসির কী আসলেই ম্যাজিস্ট্রেট।

বেকারির মালিকের সেই প্রশ্নের উত্তরে তারা ভয়ে ভিতস্ত হয়ে উত্তর দিলো, তো আপনার কী মনে হয় আমি ম্যাজিষ্ট্রেট না। এক পর্যায়ে তাদের আইডি কার্ড দেখতে চাইলে,২জন সাংবাদিকের আইডি কার্ড দেখায় আর বাকী ২জন ভুয়া ম্যাজিষ্ট্রেট ও তার সহযোগী আইডি কার্ড দেখতে ব্যার্থ হলে বেকারির মালিক এলাকার সাধারণ জনগনকে ডেকে তাদের হাতে সোপর্দ্য করেন। উচ্ছুক জনতা এক পর্যায়ে ওই ৪ জনকে দড়ি দিয়ে বাধেঁ।এরপর তাদেরকে বেধড়ক মারতে থাকে।

ওই বেকারির মালিক আব্দুল মতিন (বিপু) জানান, অমি বাড়িতে ছিলাম।আমার ছোট ভাই বললো ভাইয়া ,কয়েকজন সাংবাদিক এসেছে, আর একজন ম্যাজিস্ট্রেট এসেছে।যে ম্যাজিস্ট্রেট ছিলেন তার নাম নাসির।এলাকায় যখন লোকজন জমায়েত হয়েছে তখন ওই ম্যাজিস্ট্রেটসহ সবাই পালতে যাচ্ছিলো। পরে ওই ম্যাজিস্ট্রেটের ভাই এসে মুচলেকা দিয়ে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়।
উল্লেখ্য যে গতবছরে ২২ জানায়ারী ২০২০ইং তারিখে গোদগাড়ীতে টমোটর আড়তে গিয়ে চাঁদা বাজির সময় ভুয়া আলমগির ও ভুয়া সাফিয়ান স্বাধীনকে গণ ধোলাই দিয়েছিলো স্থানীয়রা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights Reserved
Developed By Cyber Planet BD